বালুমহাল

কুহন সাধু




বালুমহালের ঘ্রাণ বয়ে আনে নিরব জল
পতনের ধ্বনি সুপ্ত আভা ছড়ানো আকাশে,
এইসব ছড়ানো ধূলি সূদূর কোন ইশারা
ঝড়ের পূর্বাভাস, বুনো হুইসেল
শুন্যের নরম হাড়ে প্রক্ষিপ্ত।
তরঙ্গ প্রসবের প্রান্তর বহুভাষা পুষে
এখানেও বিন্দু নয়, পাপড়িঢাকা তীর্থজল
লোবানের গন্ধে ধাবমান,
শায়িত আমার ওপর যত বৃষ্টিপাত
চেনা অক্ষরের নাচন
বাদামী পশম জড়িয়ে যে আলিঙ্গন
সে কী নয় ভূতপূর্ব হিমসন্ধ্যার?
একি প্রাণরূপ টান কথনের অধিক ভঙ্গিমায় চেনায় পরস্পর।