সুফিয়ানা

সায়ন রায়


ইস্তিঘনা জেগে থাকে মাথার আলোয়
এই প্রেম অন্ধ নয় গভীর এলেম
তলব করেছি বহু বহু রাত্রি দিন
এশকের সুঘ্রাণে ভরে ওঠে প্রাণ
মৌত কোনো মৃত্যু নয়
মৌত এক সুহানা দাওয়াত
কালো দরোজার পিছে নূরের আরশ
ভেসে যায় এই দিল্ ধুলো হয়ে হাওয়ায় হাওয়ায়
মারেফাতে আছি স্থির
আখেরাতে জমে ওঠে লাভ।

ইস্তিঘনা-মনের প্রশান্ত অবস্থা। এলেম-জ্ঞান। এশক্-গভীর প্রেম। নূর-জ্যোতি। আরশ- আল্লাহর আসন। মারেফাত-জ্ঞানের জোরে সমৃদ্ধ প্রেম,মরমি সাধনা। আখেরাত-পরকাল।

২.
আমাকে নাঙ্গা করো সন্ত তাহির
এই পথ খরিদার-ই মহব্বত
সব বেশ সব ভূষা আলগা পাতলা করে
হাওয়ায় হাওয়ায় ভেসে উড়ে যাক ক্ষীণ
পর্দাটুকু সরে যাক নাদান মুরিদ
ঘোর লাগা চোখে আজও লোভের কলুষ
নগীনা হারিয়ে আমি বেবাক বধির
এই দিল্ বেশরম এই দিল্ ধুলোয় মলিন।

নাদান-বোকা। মুরিদ-শিষ্য। নগীনা-মণি,বহুমূল্য রত্ন।

৩.
শাসকের থেকে বহু দূরে দূরে
থাকো খাজা পীর আওলিয়া
তোমার নগীনা দুখীর ইমান
ছেঁড়াখোঁড়া সুফ্ তাসাউফ জ্ঞান
দীন দরবারে ভোরের আলোয়
কত গুল ফোটে চারিদিকে নূর।
শাসকের থেকে নিরাপদ দূরে
সরে থাকো খাজা আওলিয়া
সিজদা জানাই ওই সর-তাজে
শমা জ্বলে ওঠে রুহের মাঝেতে
ক্ষমতার দিকে পিঠ ফিরে রেখে
দুনিয়াদারির গাও গান।

খাজা-প্রভু। আওলিয়া-শাহ সুফি নিজামুদ্দিন আউলিয়া। ইমান-বিশ্বাস,সততা। সুফ্-পশম।
তাসাউফ-সুফিসাধনা। গুল-ফুল। সিজদা-প্রণত হওয়া। সর-তাজ-মুকুট।শমা-প্রদী প।রুহ্-আত্মা।