দ্য দানিশ গার্ল

শানু চৌধুরী









১.
চিত্র থেকে নাড়া দিল কান্নার প্রকার।
যেখানে দুর্গের চেহারার আগে চুমু খুলে নিয়ে
তুমি সেজেছিলে এক পাখি রক্ত ডুব
এত টান ভাষার আগে বসে গেলে
গাউন অথবা ফুলের চরিত্র তোমার লিঙ্গকে খুলে নেয়,
যদিও স্বভাবসুলভ প্রতিবেশীর খলখলে হাসি
পাখিটির গড়ন বোঝেনি কোনোদিন !

২.
আঙুলটি সহজাত।
তার প্রক্রিয়া ভেঙে নিলে কোঠর কান্নায়
শুয়ে থাকে রাত্রির পোশাক!
বিছানার বুকে ঝুঁকে যাওয়াকে লিঙ্গান্তর বলে ডাকো
আসলে ছবির ক্ষতে যারা যাত্রী হলো না কোনোদিন
তাঁদের প্রতিকৃতিতে দেখা যায় শিথিল এক আত্মকন্ঠের রুবাব

৩.
ঘাসজমি দেখার আগে হয়েছিল শেষ অস্ত্রোপচার
অথচ তোমার ছবি নিয়ে চিত্রকর বদলে দিল
সাজসজ্জার সংরাগ... এ কি চোখ?
আসলে ছদ্মবেশ ও পোশাক বদলে ফেলার আগে
তোমার নিজের, শরীর ছুঁয়ে দেখার প্রক্রিয়ায়
তৃপ্তিঘরের সুখে উড়ে যায় বিস্তীর্ণ প্যালেট
কাপড়ের চিত্রনাট্য,খুবলে খাওয়া ঠোঁট এতটাই তন্ময় ভেবেছিলে তুমি
যাঁর প্রদর্শনীর জলপ্রপাতে খুঁইয়ে যায় হাসিকণার চিরাগ