দেরাদুন টু মুসৌরি

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়



পাহাড়ি আলোছায়াপথের বাঁক থেকে একদিন এসে দাঁড়াবে কেউ , পাইন-কনিফারের শীত-অধিবেশনে একদিন দেখা হবে ঠিক, কেউ ফিরে এসে বলবে - "কেমন আছো ?" .... জ্যাকেটের মধ্যে সযত্নে লুকিয়ে রাখা উষ্ণতা লাফিয়ে নেমে পড়বে পথে , নির্জন হেয়ারপিনে অতীতের আলিঙ্গন-ঋতু দাঁড়িয়ে পড়বে আবার , ভাঙাচোরা ভ্রমণের পাতায় আজ আবার লেখা হবে মাইলফলক। দেরাদুন টু মুসৌরি একটা এস.ইউ.ভি. ছুটে চলেছে অনন্তকাল , অর্কিড রঙের ব্যাগে উঁকি দেয় আনসলভড অভিমানসমূহ - এই মাউথ-অর্গ্যান পড়ন্ত বিকেলের আলোয় ভুলে যাওয়া মন্তাজ হয়ে রয়ে গেছে অনেক বছর। পাহাড়ি খাড়াই পেরিয়ে একদিন এসে দাঁড়াবে এক ছায়া , ছায়াদের সম্মেলনে আজ সার্ভ করা হবে স্পার্কলিং রোজ ওয়াইন , দূরে কাঠের বাংলোর মাঠে কারা যেন জ্বেলে দেয় আগুন, বনফায়ারে উদ্ভাসিত প্রিয় কিছু মুখ - এই চতুর আইলাইনার-অধ্যুষিত সময় তাদের আর চিনতে পারেনা। এই আলোছায়াপথ বেয়ে একদিন এসে দাঁড়াবে অবিশ্বাস্য পূর্বজন্ম - আইফোন ক্যামেরায় সেই ছবি ওঠেনা কখনো, দুঃখী প্রতিবাদ করে ওঠে লোমওয়ালা পাহাড়ি কুকুর। কবে কারা এসেছিল, কবে চলে গেছে , রয়ে গেছে পদছাপ , সেই ট্রেল ফলো করে খাদের সামনে এসে দাঁড়ায় টুরিস্ট , যে এক নিখোঁজ রহস্য-কাহিনি। কাঁটাঝোপে আটকে আছে তার ছেঁড়াখোঁড়া টুপি , দেরাদুন টু মুসৌরি একটা এস.ইউ.ভি. ছুটে চলেছে অনন্তকাল .....