অংকুর

স্নিগ্ধা বাউল

অংকুর

তোমায় ছুঁয়ে যাওয়া পশ্চিমা বাতাসে
আমার শীতল যুদ্ধ
পলিমাটির তর্জমায় এখানে
তুমিহীনতাও নতুন জন্ম দেয়
ঠাসা চড়ুই ঝাঁক বেঁধে বলে যায়
খড় কুটো জমা পোড়ামুখি
গলিতে গলিতে ধরা দিবে নতুন ভুমি-
এত ব্যবধানের জীবন আমাদের
লবণাক্ত নিষিদ্ধ জলও ঢেউ বাঁকায়
বয়ে নেয় গোপন হলফনামা-
কিছু বাতাস আমায় অনবরত কাঁদায় , পরিপূর্ণ করে দেয় অভাবের ভারে, পায়ের ছাপ উল্কার মতো করে ডাকে-
কিছু জতিলতা আমার ভালো লাগে, নিজেকে আবিষ্কার করি নিজের মোহে ,
কিছুদিন বৃষ্টি হলে আমার মনে হয়
বেদনারা খানিক তরল হয়-
এত এত রোদ ছুঁয়ে যায় তোমায়
আমি তবে রোদ হই এমন বাহানায়।





অবসর


তারে মনে পড়ে যায় অবসরের তারিখে। দেখা না হওয়ার বহুদিন পর সে ভেসে আসে ত্রিমাত্রিক হয়ে।
সে নাই এমন করে আমায় দেখার মতো । আমিই তার পরিচিত হয়ে নেই কোথাও এমন করে।
আমার মহাশূন্যে বহুকাল অবসর;
ছেড়ে যাওয়ার পর এমন।