চিৎকারপর্ব

সেলিম মণ্ডল

চিৎকারপর্ব

১।
ছিঃ ছিঃ চিৎকার পেরিয়ে চলে যাব

এই জীবন সাড়ে তিন মিনিটের পথ
তবুও ফুটবলের মতো নিজেকে নিয়ে
খেলতে খেলতে— দিতে হবে গোল

আড়াই মিনিট পথ হেঁটেছি...
গোল নেই
শূন্য
শুধু শূন্য ঝুলে আছে

লাল লাল আপেলের মতো

২।
চিৎকার-বমি ওঠে
ফেলে না-দিয়ে আমি গিলে নিই

কোথায় সে শস্যভর্তি মাঠ
সবুজদিনের ঝুঁকে পড়া নিয়ে হেসে ওঠে আলো?

পাঁজরে কুৎসিত করুণা—
চলকে ওঠে

জল, কোথায় জল? যেখানে নবীন মেঘ খিলখিল করে!


গাছপর্ব

১।
গাছেদের ভবিষ্যৎ জেনে গেছে যে পাখি
তার ডানা থেকে খসে পড়ে রোদ

একটা রাগি গ্রীষ্ম দূর থেকে দেখে, সব—
বীজের কবুতর খোসা ছাড়িয়ে
ফেলে রাখে শোক

২।
ফুল তার যোনির ভিতর কতটা ছায়া পুষে রাখে
পুড়ে যাওয়া বালিকার নির্লিপ্ত স্তন
অন্ধকারে অন্ধকারে হয়ে ওঠে ঘর?

৩।
শিকড়ের বাল্যকাল জুড়ে গাঢ় হয় শোক
অবলা পুরুষ, নারী হয়ে উঠো না
আজকের দুধধানে নবান্ন উথলিয়ে ওঠে

সব শিকড় কি শিখরের খোঁজ?

৪।
কান্ড নেই, জ্ঞান নেই
পাতায় পাতায় বয়স গুণে নেয় মূলরোম
যতটা জল কোশ থেকে কোশে

ততটাই আমাদের কোলাহল
অবৈধ
অবৈধ
অলৌকিক হিসেব