তিনটি কবিতা

প্রবীর রায়

সুপারিজীবন

কমলা রঙের কথা শুধু নয়
তার কোমলতার কথাও প্রচারিত হল বাগান কৌতুকে
চামড়া খসিয়ে অন্তর্লিপি পাঠ আর জতির কৌশল
লালসায় ভিজে যাবে
দীর্ঘ গাছের নীচে দাঁড়িয়ে পুরনো অভ্যাস মাপছে বয়েস



সম্ভাবনা

কর্ষনে আলগাভাব এসে গেল
ভাব ও ভাবনা অনায়াসে খেলিয়ে দিচ্ছে বীজ ও অংকুর
মিছিলের মুখ বদলে অন্য ঘোষনা
প্রখরতা হারিয়ে তার মেঘলা ছবি অসময়ে বৃষ্টি আনবে
ভেজা মুখে তখন অজস্র চুম্বন ছুম্বকক্ষেত্র গড়ে দেবে


চলাচল

ছড়াডাক শেষ করে পাতিহাঁস গল্পগুলি
ঘুম পাড়িয়ে রাত্রি ডেকে দিত
শ্বাসের তালে তালে নেচে ওঠা ফুলগুলি
আহা লালনীল কী বন্ধুভাবে রাজপুর কিংবা
রাজাপুরেও নিয়ে যেত আমাদের

বাস্তবিক এমন হয়েছিল কিনা মনে নেই
এখন পাথরের চোখে বানানো রাত্রিকথা শুধু