এবং নির্জন দ্বীপ

বিপ্লব গঙ্গোপাধ্যায়

এবং নির্জন দ্বীপ

এই লম্বা সফরে এখন সাদা পাতা উড়ে যায়
সেগুনের জঙ্গল পেরিয়ে
চারপাশে উপকথা আখ্যানমঞ্জরী
নিমেষে আয়ত্ত করে তারাদের পৃথিবীতে গেছে

উপত্যকা ভেঙে কেউ অলৌকিক চোখে
দেখে নিচ্ছে অতিথি নিবাস
পরিব্যপ্ত পথে পথে নির্জনতা
বোবা জল,
কেবল দীর্ঘশ্বাসে অবহেলা মুগ্ধ ছায়ার নীচে বাসা বেঁধে আছে

সুন্দরের চারপাশে একান্তে নির্জন আমি
ভাগীদার নেই।


অবিকল্প রাত

ফাঁকা কেবিনের পাশে একা চাঁদ
তাকে নিয়ে রাত জেগে আছি
দুপাশে অজস্র ঘুম প্রতিরক্ষা ভেঙে আসবে নিরক্ত সময়ে
তেমন সাধ্য নেই

নিঃশব্দে হাতের মুঠোয় কিছু ভুল তুলে নিতে হয়
এই ভুল অলীক আশ্চর্য খেলাঘর।

প্রিয়তোষ কল্পনায় অনন্ত প্রহর জুড়ে অবিকল্প রাত বেঁচে আছে।


গাছেরা যেভাবে লেখে

গাছেরা কবিতা লেখে
আমি জানি লুপ্ত সেই শব্দের ভঙ্গিমা
হাওয়াবাতাসের গায়ে দুলে ওঠে ছন্দের শরীর

পরাগে অক্ষর ভাসে
দূরে উড়ে যায়
হাওয়ায় আঁচলে সেই নিদ্রিত ডানার গন্ধ
অপ্রকাশ এই ধ্বনি তুমি জানো দূরবর্তী অভিমানী মেয়ে।