অপেক্ষারা নেগেটিভ ফ্রেমে

অদ্বয় চৌধুরী




‘All we can do is to wait, as calmly as possible, for it to end.’

বাইরের ঘরে বসে আছে সিদ্ধার্থ। ডাকের অপেক্ষায়; চাকরির অপেক্ষায়। ইন্টারভিউ শুরু হতে আধ ঘণ্টা বাকি।
চিন্তারা অপেক্ষা করে থাকে রাতের, অন্ধকারের, অথবা একাকিত্বের। রাত হলে, অন্ধকার বেয়ে একাকিত্ব নেমে এলেই তারা সিদ্ধার্থর কাছে এসে বসে। তাদেরও তো একা লাগে, তারাও তো সঙ্গী খোঁজে। কখনো ঘুমেরাই চিন্তা হয়ে দেখা দেয়; স্বপ্নকে বদলে দেয় দুঃস্বপ্নে।
বাবার জ্বলন্ত চিতা যখন নেগেটিভ ফ্রেমে ধরা পড়ছিল, অপেক্ষা করছিল সিদ্ধার্থ। অপেক্ষা করছিল আগুন নেভার। খোপে বাঁধা রাস্তারা অপেক্ষায় আছে তার। তাকে হাঁটতে হবে, হাঁটতে হবে সাদা-কালো কাটাকুটি ধরে।
—হোয়াট উড ইউ রিগার্ড অ্যাজ দ্য মোস্ট আউটস্ট্যান্ডিং অ্যান্ড দ্য ডিফিকাল্ট ইভেন্ট অফ দ্য লাস্ট সেঞ্চুরি?
—দ্য ওয়ার ইন ভিয়েতনাম, স্যর।
বাইরের ঘরে বসে থাকে সিদ্ধার্থরা, এখনও। ডাকের অপেক্ষায়; চাকরির অপেক্ষায়।
অপেক্ষারা নেগেটিভ ফ্রেমে ধরা পড়তে থাকে। চলতে থাকে ক্যামেরা।

‘All we can do is to wait, as calmly as possible, for it to end.’