কোলাজ

সোমা মুখোপাধ্যায়



পুষ্প সাক্ষী থাক মন্ত্র উচ্চারনে।
যজ্ঞ মোক্ষ হোক পাপ প্রক্ষালনে ।
আগুন শুদ্ধি দাও জীবন যন্ত্রণে ।
মনন শান্ত হউ জ্ঞান আহরনে ।



অপেক্ষাতে অপেক্ষাতে নদীর অপার পাড় ।
জীবনও প্রশ্ন তুলছে সময় তুমি কার ?
বাঁকবদলের নিত্যখেলা বিশ্বচরাচরে ,
কিসের ঠ্যালা শুরু হল নিধিরামের তরে ?

মৌনব্রত নিচ্ছে জীবন , ফুটছে হাসনুহানা
যৌনকারী মন গলছে মিলন সুখেই মানা ।
ডুব ডুব ডুব সাঁতারে ভব নদী পার ......।
মন মন মন চলেছে বাঁধ হয়ে সার ।

ঢেউ ঢেউ ঢেউ উঠেছে , বিলীন তুমি একা ?
মিলে মিশে এক হয়েছ, ধূসর সীমারেখা ।
এই সীমান্তে এস তুমি প্রেমিক নিধিরাম ,
কথকথায় গেঁথে নেব শ জনমের কাম ।



সুখ বড় অধরা । সুখ বড় সসীম ,
দুখ তুমি অনায়াসে হয়েছ অসীম ।

কাজ তুমি খুঁজে নাও , কর খেয়াপাড় ।
অকাজের তালিকাতে জুড়ি মেলা ভার ...।

মান তুমি চিরকাল অভিমানে ভরা ,
বিষাদের মালিকানা পরিপূর্ণ চড়া ।

ক্ষোভ তুমি চিরকাল বিক্ষোভ কর,
লোভ তুমি দাবানলে ছড়িয়ে পড় ।

ল্যাং তুমি হাসি মুখে বিজয় মুকুট ,
লবি তুমি চিরকাল নীতিগত কূট ।



ফুটছে ভুট্টা হচ্ছে খৈ
অনাদি , ভালবাসা কৈ ?
ভাঙছ ঘর তৃতীয় তুমি
অনাদি ,পুড়ছে মনোভূমি
অন্তর থেকে মুছে দিলে নাম ?
অনাদি , আমি চোখ বুঝলাম ।
জীবন সেজেছে কৃষ্ণচূড়ায়
অনাদি, প্রানপাখি কি জুড়ায় ?
নতুন তুমি সমাগত প্রায় ...।
অনাদি , বাঁধ ভেঙে যে ভাসায় ...।
কলঙ্ক তুমি মুক্তি হউ প্রাণে ।
অনাদি , অবৈধ চিরকাল টানে
বৈধ অবৈধের ভেদনীতি কি ?
অনাদি,আপেক্ষিক এসব ছি ! ছি!