নিষিদ্ধ

পলাশ দে

নিষিদ্ধ
গলে পড়ছি একায় আর মোম শিখছি

রাস্তা পুড়িয়ে টিকিট পর্যন্ত
ছায়া ঝিমোচ্ছে, হারিয়ে ফেলছে গোগ্রাস

চিরুনি ভাঙতে ভাঙতে ওই
ওই বয়েস কমাচ্ছে আয়না
শুকিয়ে যাচ্ছি মোমে আর ভুলে যাচ্ছি

একা, নিষিদ্ধ উচ্চারণ পৃথিবীর


হাসো

হাসি পাচ্ছে হাসি পায়ে নেমে যাচ্ছে ঠোঁট
এভাবে জনপ্রিয় হচ্ছে কান্না ,ওভাবে
হাতরুটির দিকে একশো দিনের কাজ

কী এক মাটির বাজনা আর তুমি
তুই কি রে পেরেক খুলছিস খীষ্টপ্রভু?

মাফি দিও না হেসো না খবরদার
ডিমে তা না দিয়ে ও খাবে কেন হাসতে
হাসতে বিলোবে কেন যতই খিদে পাক

যা খুশি ফল পাকুক আমার শরীরে
যুদ্ধ বিমানের তাতে কিছু রে?

চান

পাখি ডাকলে মাটি সাড়া দিচ্ছে
পিঁপড়ে আলাদা অন্য বিচ্ছিন্ন খিদেয়

তুমি কি হাওয়া শেখাচ্ছো ওই বেকার হেমন্তে?
শীত আর পাতা খুঁজতে খুঁজতে
গাছ টেনে নেওয়া
ভুলে ভুলে যাচ্ছেন আপনি?

পা থেকে আসমান পর্যন্ত এই যে গেরিলা বাহিনী
ফাঁকা আর রঙিলা এবং
ঘষে তোলা রং

দেহাতি চানকে তুমি স্নান বললে
ভিজেছে যাওয়া থমকে যাচ্ছে