পরিব্রাজক

শেখর রায়

পরিব্রাজক

সময়

ঘোষণা করে তাঁর অস্তিত্ব

নিঃশব্দে।



আগ্নেয় পাহাড়ের বিষাক্ত ধোঁয়ায়

অস্ফুট পৃথিবীর হৃদস্পন্দন

অবিরত অগ্নি বিস্ফোরণে

তপ্ত হয়েছে ভুমিপৃষ্ঠ।



কে নিভাবে আগুন

কে জুড়াবে জ্বালা

সমুদ্র নিজেই জ্বলে জ্বালানী তরলে

কে করবে একদিন সনাক্তকরণ।



নিশ্ছিদ্র না হলেও বায়বীয় স্তর

স্তব্ধ হয়নি তবু আহ্নিক গতি

মেঘলা আকাশে বিলীন যে ধ্রুবতারা

গ্রহণে আক্রান্ত অস্পৃশ্য যে সূর্য



বিপন্ন মহাকাশে

উদয়ের পথে ওরা

অনন্ত পরিব্রাজক।


তারুন্য

তারুন্য সে সূর্য নয়

নয়কো স্নিগ্ধ তারা

প্রখর রৌদ্রে অতি অভিজ্ঞ

বুনো ঘাস মাটি পোড়া।



তারুন্য এক স্থির প্রতিজ্ঞা

পরাজয় শোধ নেয়া

গোপনে গোপনে প্রস্তুত হয়ে

হঠাৎ আঘাত দেয়া।



তারুন্য গন অভ্যুত্থান

ব্রাত্য জনের আশা

বোবা পাহাড়ের ঝর্নার গান

উদ্দাম ভালবাসা।