সব চিত্র কাল্পনিক

পায়েলী ধর

পরিচিত দৃশ্যগুলোর বদলে যাওয়ার তাগিদ ছিল । হয়তো তাই কোনোরকম
কোনোরকম পূর্বাভাস ছাড়াই জল এল চতুষ্কোণিক মহল্লায় । ভিনদেশী ক্র্যাফটিং
ডাইনিরা মারহাব্বার তালে পা মিলিয়ে হঠাৎই কিংবদন্তী হতে চাইলো ।
সন্ধিবদ্ধ দলমন্ডল থেকে আলাদা হতে হতে একসময় খসে পড়লো
কেউটে - কেঁচোর জারিত রসায়ন । স্ব-ভূমার শূন্যগর্ভে চটুল পারথেনিয়াম
মেলে ধরলো তার বিষ বিষ ডালপালা । পাকদন্ডীর পথ হয়ে ফ্যালোপিনিক
গহ্বর অব্দি নিমেষে ছড়িয়ে পড়লো অবিশ্বাসের পিচ্ছিল প্রদহন । পরিবর্তিত
পট ও ভূমিকারা এখন সিদ্ধ হাতে লিখতে জানে ব্যবধানের সংবিধান ।
এতদিনের জমিন জিরেত তার সমস্ত অ্যানাটমিতে লেপে নেয় রং বদলের
রূপটান । আর ছত্রিশ গুনের ভুলে ভরা যোটক পৃথিবীর পথ আটকে দাবী জানায়
ফিরিয়ে দাও ভরসা যোগ্য বিশল্যকরন ।


ক্লাইম্যাক্স

শানবাঁধা পাড়ের ওপর সাজানো আছে অনামী মাংসপিণ্ড । এ’মাত্র জানা গেছে
তারও স্নায়ুসংসার ছিল । বুড়ো বটের মত আগাপাশতলা গার্হস্থ্য সন্ন্যাসী ।
ফেব্রিকেটেড ফুলতোলা রান্নাবাটি ঘর , কাঠকয়লা , গলিপথ , নার্সিংহোম , চুল্লু ,
বাতাবী স্তন আর মুখোশ সব মিলিয়ে ফুল ফ্লেজেড দশাবতার ।
ঠিক কিছুক্ষণ পর শুরু হবে ন্যাড়া পোড়া উৎসব । মাস্তুল বেয়ে উঠে আসবে
ধোঁয়ার পতত্রী । পাখনা মেলে ছুটে যাবে ছড়ানো নীলে । মিথেইন-ইউরিয়া-
সালফার-কার্বন-আবোল-তাব োল গুবলেট মেরে নিয়ে আসবে
একমুঠো বখবাস ছাই আর টাটকা মাংসের ঝোল গন্ধ ।
স্টুপিডিটি স্ট্রীটে দাঁড়িয়ে , এখন শুধু ভুল গোনা আর গিলে খাওয়া
ইন্দ্রিয় পতনের চটকানো পিন্ডি ।